Server sync... Block time in database: 1615391772, server time: 1664400561, offset: 49008789

Steem bangladesh contest || health || 16th march 2022 eng.


হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলেই ভাল আছেন,আমিও ভাল আছি। আমি আজকে স্টিম বাংলাদেশ আয়োজিত হেলথ কনটেস্টে অংশগ্রহণ করতেছি।


Rampur

https://goo.gl/maps/cRjbiDANd4zLEgEq6

আলোচনার বিষয়


ডায়াবেটিস

diabetes-1724617_640.jpg

Source



ডায়াবেটিস কি ?

diabetes-2058045_640.webp

Source



raspberry-4599580_640.jpg

Source

ডায়াবেটিস এক ধরনের মেটাবলিক ডিজঅর্ডার। শরীরে ইনসুলিন আছে কিন্তু কাজ করতে পারছে না কিংবা ইনসুলিন একবারে নষ্ট হয়ে গেছে। আমরা সাধারনত 4 ধরনের ডায়াবেটিস এর কথা বলি তারপর টাইপ 2 জেস্টেশনাল এবং অন্যান্য। টাইপ ওয়ান মানে হল যে ভাবেই হোক যাদের শরীরে ইনসুলিন নষ্ট হয়ে গেছে তাদের যদি আলাদা করে ইনসুলিন দেওয়া না হয় তাহলে তারা মারা যেতে পারেন। আমরা যখন বাইরে নানা ধরনের খাবার খাই ফাস্টফুড খাই তখন শরীরের ধরনের পরিবর্তন আসে। দেখা যায় শরীরে ইনসুলিন আছে কিন্তু সেটা কাজ করতে পারছে না,তখন আমরা যে খাবার খাই সেটার গ্লুকোজ জমে যায় এটি টাইপ 2 ডায়াবেটিস।



ডায়াবেটিসের কারণ ও লক্ষণ



hamburger-1238246_640.webp

Source

আমরা যখন খাই তখন আমাদের প্যানক্রিয়াস থেকে ইনসুলিন নিঃসৃত হয়। ইনসুলিনের কাজ হল যে খাবার খাচ্ছি সেটার অতিরিক্ত গ্লুকোজ কমিয়ে দেওয়া। যখন ইনসুলিন উৎপাদন কমে যায় বা ইনসুলিন উৎপাদন হওয়ার পরও যখন কাজ করতে পারে না। তখন শরীরের অতিরিক্ত গ্লুকোজ থাকে সেই অবস্থা কেন ডায়াবেটিস বলি। খালি পেটে যদি গ্লুকোজের মাত্রা বেশি থাকে আর খাওয়ার পর যদি এগারোর বেশি থাকে তখন সে অবস্থাকে ডায়াবেটিস বলি।টাইপ 1 ডায়াবেটিস এর ক্ষেত্রে সবাই বুঝতে পারে। হঠাৎ করে স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে যায় ওজন কমে যাওয়া সমস্যা হয় টাইপ টু ডায়াবেটিসের রোগীদের বেলায় তারা বুঝতেই পারেনা যে তাদের ডায়াবেটিস আছে বারবার প্রসাব করা খাবার খেয়েও খুদা নাম এটা ক্লান্ত লাগা ঝিম ধরা বা কোথাও কেটে গেলে বা ঘা হলে সহজে সেটা না শুকানো এরকম কিছু লক্ষণ থাকে যেহেতু তারা চিকিৎসকের কাছে যান না তাই 3,4 বছরে অনেক ক্ষতি হয়ে যায় দেখা গেল চোখে রক্ত জমেছে হাটে ব্লক যকৃতে ক্রিয়েটিনিন বেশি।



ওজনের সাথে ডায়াবেটিসের সম্পর্ক



young-woman-2699780_640.webp

Source

সরাসরি বৈজ্ঞানিক সম্পর্ক আছে এটাও বলা যাবে না তবে যাদের ডায়াবেটিস বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় তারা ফাস্টফুড খেতে ভালোবাসেন।শুয়ে বসে সময় কাটানোর জন্য বেশি এ কারণে তাদের শরীরে ইনসুলিন প্রতিরোধক বেড়ে যায়। ফলে ইনসুলিন নিঃসরণ হলেও সেটা কাজ করতে পারে না।তাই টাইপ টু ডায়াবেটিস হওয়ার আশঙ্কা প্রবল থাকবে বডি মাস ইন্ডেক্স ঠিক রাখা খুবই জরুরি আর পারিবারিক ইতিহাস থাকলেও জিনগত ভূমিকা বা জেনেটিক ক্ষেত্রে ডায়াবেটিস হওয়ার আশঙ্কা বেশি একটি ভূমিকা আরেকটি হলো জীবনযাপন। বাবা মায়ের ডায়াবেটিস আছে মানে আপনার ডায়াবেটিস হওয়ার আশঙ্কা 50 শতাংশের বেশি আর জীবন-যাপন যদি স্বাস্থ্যকর নয় সেক্ষেত্রে আরো 50 শতাংশ মানুষ শতভাগ। ঘরের কাজ অফিসের কাজে যাই থাকুক না কেন ব্যায়ামের বিকল্প নেই প্রতি সেকেন্ডে দুই পা হাটতে হবে । জোরে জোরে প্রতিদিন অন্তত আধা ঘন্টা থাকতে হবে।



ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনার উপায়



diabetes-2130236_640.jpg

Source

ডায়াবেটিস হলে চারটি করণীয় আছে। প্রথমটি হলো ওষুধ সেবন করা দ্বিতীয় টি হল ইনসুলিন গ্রহণ তৃতীয়টি হলো স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন 4 নম্বর হলো মানসিক সমর্থন। এগুলো খুবই জরুরি ওষুধ শৃঙ্খলা এগুলো জরুরী। জীবনযাপন ঠিক রাখতে হবে ।ব্যায়াম করতে হবে । নিয়মিত চেকআপ করতে হবে । বাসায় গ্লুকোমিটার রেখে নিয়মিত মাপতে হবে ।ডায়াবেটিস হওয়ার পর যদি কোনো রোগী এসব মেনে খাওয়ার আগে পাঁচ থেকে ছয় আর খাওয়ার পরে দশ এর নিচে রাখতে পারেন তাহলে ভালো ।তিনি ঘোষণা ডায়াবেটিস নিয়ে সুস্থ থাকবেন ।ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য পরিবারের সমর্থন খুবই জরুরী।



যে সকল খাবার খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়



soup-2897649_640.jpg

Source

  • দই- দইয়ে ক্যালরি কম থাকে ফলে দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণ করে এবং রক্তের সুগারের মাত্রা বাড়তে দেয় না।
  • খেজুর- খেজুর নিয়মিত খেলে রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়ে না।
  • বাদাম- বাদামে থাকা পটাশিয়াম শরীরের সোডিয়ামের মাত্রা কমিয়ে দেয় ফলে ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত থাকা যায়।
  • শাকসবজি- আঁশ জাতীয় শাকসবজি খেলে সহজে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করা যায় তাই বেশি করে শাকসবজি খান তাহলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা যাবে।

বন্ধুরা এই ছিল আমার ডায়াবেটিস রোগ নিয়ে আমার বিস্তারিত আলোচনা আশা করি আপনারা আমার এই পোষ্টের মাধ্যমে উপকৃত হবেন এবং ডায়াবেটিস সম্পর্কে যথেষ্ট জ্ঞান অর্জন করবেন।

আমি @maulidar @avibauza এই দু'জনকে এই কনটেন্টটিতে অংশগ্রহণ করার জন্য বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।



ধন্যবাদ সবাইকে


Comments 0